রেফারির গাফিলতির পরও পেনাল্টিতে দ্বিতীয় কলিঙ্গ যুদ্ধ জয় লাল হলুদ বাহিনীর




বেঙ্গল ফুটবল নিউজ ডেস্ক৮ এপ্রিল, ২০১৮

             আজ ভুবনেশ্বরের দ্বিতীয় কলিঙ্গ যুদ্ধে জয় লাভ করে সুপার কাপের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেলো লাল হলুদ বাহনী। আইজল এফ সি -কে ১-০ তে হারিয়ে এদিন জয়ের হাসি শেষ পর্যন্ত হাসল বাংলার ইস্টবেঙ্গল। 






            চলতি সুপার কাপে জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করে ফের আইজলকে পরাজিত করে সেই জয় যাত্রা অব্যহত রাখল লাল হলুদ শিবির। এদিন খেলা শুরুর পর দু -পক্ষের মধ্যে কেউই গোল দিতে সক্ষম হচ্ছিল না। তবে লাল হলুদ শিবির এদিন অনেক সুযোগ পেলেও তার অধিকাংশই ডুডু-র ভুলে নষ্ট হয়েছে, তাই শেষ - মেশ জয় উঠে আসে ডানমাউইয়া-র পেনাল্টিতে। ইস্টবেঙ্গলকে কড়া টক্কর দিতে পিছিয়ে ছিলনা আইজল এফ সি -ও, যদিও তাদের কিছু সুযোগ তারা নষ্ট করেছে। এদিন খেলার শুরুর প্রথমার্ধে কোনো পক্ষই গোল করতে সক্ষম হয়নি, দ্বিতীয়ার্ধে আইজল এফ সি -এর গোলরক্ষকের ভুলে পেনাল্টি পায় লাল হলুদ বাহনী, আর তাতেই খেলা শুরুর ৯০+৫ মিনিটের মাথায় খেলার প্রথম এবং জয় সূচক গোলটি করে ইস্টবেঙ্গল।


           আজকের ম্যাচকে বিশ্লেষণ করলে বলা যায় যে, অনেকক্ষেত্রেই রেফারির গাফিলতি চোখে পরার মতো। রেফারি খেলার শুরুতেই ইস্টবেঙ্গলের একটি অনিবার্য পেনাল্টি না দেওয়ার দরুন সমালোচকদের কাছে আলোচিত হয়েছেন। তবে রেফারির গাফিলতিও আটকে রাখতে পারেনি লাল হলুদ-এর জয়। জয় লাভের পর আনন্দিত 'চিফ কোচ' খালিদ জামিল তৎক্ষণাৎ জড়িয়ে ধরেন তাঁর পিতৃসম লাল হলুদ টিডি সুভাষকে। তবে ডুডু-কে ফিরিয়ে নেওয়ার পর তাঁর জার্সি ছিড়ে ফেলা কোনোভাবেই একজন প্রোফেশনাল প্লেয়ারের থেকে আশা করা যায়নি। তবে যাই হোক, এই জয়ের ফলে সুপার কাপের সেমিফাইনালে যাত্রা অব্যহত থাকলো মশাল বাহিনীর। তাদের পরবর্তী ম্যাচের জন্য রইল অনেক লাল হলুদ শুভেচ্ছা।


No comments