ডার্বিতে চির প্রতিপক্ষ মোহনবাগানকে পরাজিত করে সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাতে চান কাশিম।


বেঙ্গল ফুটবল নিউজ ডেস্ক২৪ জুলাই, ২০১৮

    রবিবার কলকাতায় পদার্পণ করেই কাশিম আইদেরা সোমবার সকাল সকাল সরাসরি পৌঁছে যান ইস্টবেঙ্গল তাবুতে। তাবুতে পৌঁছেই চটজলদি সতীর্থ এবং কোচদের সঙ্গে পরিচয় পর্ব সেরে অনুশীলনে নেমে পরেন তিনি। তবে এদিন বৃষ্টির দরুন লাল হলুদের মাঠে জল জমে যাওয়ায় আর ময়দানে অনুশীলন করার সুযোগ হয়নি কাশিমদের, তাই শেষ অবধি জিমেই গাঁ ঘামিয়ে নিলেন কাশিমরা।




         অনুশীলন শেষে গাড়িতে ওঠার সময়ই এদিন কাশিম আইদেরা জানিয়ে দিলেন যে তিনি ডার্বি নিয়ে বিশেষ উৎসাহিত। মিনার্ভায় থাকা কালীনই তিনি শুনেছিলেন বাংলার ডার্বির কথা, দেখেছিলেন ডার্বির হাউসফুল স্টেডিয়াম, সেখান থেকেই ডার্বিতে যোগদান দেওয়ার ইচ্ছে জন্মায় কাশিমের মনে, তাই আই লিগ শেষে ইস্টবেঙ্গলের প্রস্তাব পাওয়ার পর আর কিছু ভাবেননি তিনি,সরাসরি যোগ দিয়েছেন লাল হলুদ শিবিরে।


        কাশিম আরও জানান যে ইস্টবেঙ্গলে যোগ দেওয়ার পরই তিনি অসংখ্য শুভেচ্ছা বার্তা পেয়েছেন লাল হলুদ সমর্থকদের কাছ থেকে। তাই এর বিনিময়ে তিনি লাল হলুদের চির শত্রু মোহনবাগানকে ডার্বিতে পরাজিত করে উপহার দিতে চান লাল হলুদ সমর্থকদের। তবে শুধু ডার্বি উপহারই নয়, আইদেরা জানিয়েছেন যে তিনি তাঁর সেরা পারফরম্যান্স দিয়ে ভারতের সেরা খেতাব উপহার দিতে চান ঐতিহ্যবাহী ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে। এবং এই উপহার দিতে পারলে যে সেই সেলিব্রেশন কতো বড়ো হবে তারও আন্দাজ ইতিমধ্যেই পেয়ে গিয়েছেন কাশিম আইদেরা। এখন দেখার বিষয় এটিই যে মিনার্ভায় যে সফলতা কাশিম পেয়েছিলেন সেই সফলতা তিনি ইস্টবেঙ্গলে এসেও ধরে রাখতে পারেন কীনা।

No comments