২০১৮-২০১৯ এর মরশুমে আই লিগেই নামতে হচ্ছে লাল হলুদকে। জানতে পড়ুন।


বেঙ্গল ফুটবল নিউজ ডেস্ক২৭ জুলাই, ২০১৮

          কোয়েসের সঙ্গে চুক্তির পর এই মরশুমেই আই এস এল যোগদানের জন্য উঠে পড়ে লেগেছিলেন লাল হলুদ কর্তারা। সেই নিয়ে মিটিং করতে মুম্বাইতেও গিয়েছিলেন লাল হলুদ শীর্ষককর্তা দেবব্রত সরকার। সেখানে এ আই এফ এফ কর্তার সঙ্গে কথা হলে দেবব্রত সরকারকে জানানো হয় যে এই বিষয়ে এ আই এফ এফ নয় বরং সরাসরি আইএমজিআর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনাতে বসাই ঠিক হবে। শেষ অবধি আইএমজিআর এর কর্তার সঙ্গে লাল হলুদ শীর্ষককর্তার আলোচনা হলেও তাতে লাভের লাভ কিছুই হলো না। আলোচনায় যে পরিস্থিতি তুলে ধরা হলো তাতে বলাই যায় যে অন্তত এই মরশুমে আর আই এস এল-এ খেলার সুযোগ পাচ্ছে না লাল হলুদ শিবির।

         বেঙ্গল ফুটবলের তরফ থেকে আমরা অনেকদিন আগেই জানিয়েছিলাম যে নানান সমস্যার দরুন এই মরশুমে ইস্টবেঙ্গলের আই এস এল -এ খেলার সম্ভবনা খুবই কম। আমাদের সন্দেহকেই শেষ অবধি সঠিক প্রমাণিত করে এই মরশুমে আই লিগেই সম্ভবত খেলতে নামবে লাল হলুদ বাহিনী।


          ইস্টবেঙ্গলের এই মরশুমে আই এস এল খেলা নিয়ে যেই দুটি কারণ সবচেয়ে বেশি বাঁধা হয়ে দাড়াচ্ছে, সেই দুটি কারণ হলো- প্রথমত 'ওয়ান সিটি ওয়ান ফ্র্যাঞ্চাইজি' নিয়ম এবং দ্বিতীয়ত এটা ঘোষনা হয়ে যাওয়া যে এই মরশুমেও আই এস এল ১০ টি দলকে নিয়েই হতে চলেছে।  




          আই এস এল -এর নিয়মানুযায়ী একটি শহর থেকে কেবলমাত্র একটিই দল আই এস এল-এ যোগ দিতে পারে। সেক্ষেত্রে কলকাতার হয়ে আগেই আই এস এল-এ এটিকে থাকার দরুন ইস্টবেঙ্গলকে আই এস এল-এ যোগ দিতে হলে হোম গ্রাউন্ড হিসেবে বেঁছে নিতে হবে অন্য কোনো শহরকে, আর এই ব্যাপারেই চরম আপত্তি লাল হলুদ শীর্ষ কর্তা দেবব্রত সরকারের। তিনি জানান যে অন্য কোনো শহরকে হোম গ্রাউন্ড করে নয়, ইস্টবেঙ্গল আই এস এল খেললে একমাত্র কলকাতার দল হিসেবেই খেলবে। আর এর জেরেই হয় বিপত্তি। এই মরশুমে যেহেতু এটিকে কলকাতার হয়ে রয়েছে এবং এখন শুধুমাত্র ইস্টবেঙ্গলের জন্য নিয়ম বদলানো সম্ভব হবে না, তাই হয়তো এই মরশুমে আর আই এস এল-এ যোগদান করা হবেনা লাল হলুদ শিবিরের। আবার দ্বিতীয় সমস্যাটি হলো যে ইতিমধ্যেই আই এস এল কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করে দিয়েছেন যে ১০ টি ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়েই এবারের আই এস এল অনুষ্ঠিত হবে। কাজেই এখন হঠাৎ ইস্টবেঙ্গলকে আই এস এল-এ নেওয়া সম্ভব হবেনা। কারণ এখন ইস্টবেঙ্গলকে নিতে হলে ফের সংবাদ মাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি জারি করে বিড ওপেন করতে হবে, আর তাতে অন্যান্য অনেক দলও আই এস এল -এ খেলার আবেদন করে দিতে পারে। মূলত এই দুটি কারণেই এই মরশুমে আর আই এস এল-এ নয় বরং আই লিগেই নামতে হচ্ছে লাল হলুদ ব্রিগেডকে।


        তবে আইএমজিআর কর্তারা জানিয়েছেন যে আগামী মরশুমে ইস্টবেঙ্গল আই এস এল-এ খেলার সমস্ত শর্ত পূরণ করতে পারলে, ইস্টবেঙ্গলকে যোগদান করতে দেওয়া হবে আই এস এল-এ। সেইমতো আই এস এল কর্তৃপক্ষ ঠিকও করে নিয়েছেন যে আগামী মরশুমে ১০টির জায়গায় আরও দুটি নতুন দলের জন্য বিড ওপেন করা হবে। সেক্ষেত্রে সম্ভবনা রয়েছে যে আগামী মরশুমে লাল হলুদের পাশাপাশি হয়তো সবুজ মেরুনও যোগ দিয়ে দেবে আই এস এল-এ। সবমিলিয়ে এখন যা পরিস্থিতি তাতে বলা যায় যে এই মরশুমে ইস্টবেঙ্গলকে আই লিগে নামতে হলেও আগামী মরশুমে ইস্টবেঙ্গল খেলতে চলেছে আই এস এল-এই।

No comments