ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI দলের ম্যাচ এবং অনুশীলন বয়কটের ডাক । জানতে পড়ুন।


বেঙ্গল ফুটবল নিউজ ডেস্ক, ২১ মার্চ,২০১৯

সুপার কাপ খেলা নিয়ে কোয়েস কর্তা এবং ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের মধ্যে বিতর্ক অব্যহত৷ কোয়েস কর্তা যেখানে ভারতীয় ফুটবলের রোডম্যাপ না পেলে সুপার কাপ খেলতে রাজি নয় সেখানে সুপার কাপ খেলতে নাছোড়বান্দা ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কর্তারা। ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কর্তাদের পক্ষ থেকে কোয়েস কর্ণাধারের সিদ্ধান্ত জানতে চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। সেই চিঠির উত্তর দেওয়ার জন্য ৪৮ ঘন্টা সময়সীমা দেওয়া হয়েছে কোয়েস কর্তাকে৷ এই ৪৮ ঘন্টাতে উত্তর না পেলে পরবর্তীতে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কর্তাদের পদক্ষেপ কি হবে সেটিও বুধবার সন্ধ্যের মিটিং-এই ঠিক করে ফেললেন তারা।




ইস্টবেঙ্গল কর্তা দেবব্রত সরকার জনান যে, সুপার কাপ খেলতে তারা বদ্ধপরিকর। তাই কোয়েস দল না পাঠালেও ইস্টবেঙ্গল ক্লাব খেলবে ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI নাম নিয়ে। কোচ হবেন প্রাক্তন ফুটবলার এবং ইস্টবেঙ্গল ফুটবল স্কুলের কোচ চন্দন দাস৷ দলে থাকবেন লাল হলুদের রিজার্ভ টিম, সন্তোষ ট্রফি, ইস্টবেঙ্গল থেকে লিয়েনে-এ অন্য ক্লাবে যাওয়া ফুটবলাররা। তবে লাল হলুদ কর্তাদের এহেন কার্য মানতে রাজি নন লাল হলুদের অধিকাংশ সমর্থকেরা। তাই এবারে ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI এর ম্যাচ এবং অনুশীলন বয়কটের ডাক দিলেন তারা ।


দমদমের নিকট কিছু লাল হলুদ সমর্থকেরা জানান যে, লাল হলুদ ক্লাব কর্তারা যেভাবে কোয়েসের সঙ্গে ক্লাব রাজনীতি করে চলেছে তা মেনে নেওয়া যায় না৷ ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI তাদের অনুশীলন শুরু করবে ২২ মার্চ থেকে এবং অপরদিকে আলেজান্দ্রোর কোয়েস ইস্টবেঙ্গল অনুশীলন শুরু করবে ২৩ মার্চ থেকে। লাল হলুদ সমর্থকেরা জানান যে, তারা কোয়েস ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলনেই প্লেয়ারদের উৎসাহ দিতে যাবেন। ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI এর অনুশীলন এমনকি ম্যাচও বয়কট করবেন তারা। ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI সুপার কাপে খেললেও তাদের কোনো ম্যাচই দেখতে যাবেননা তারা। এই লাল হলুদ সমর্থকেরা আরও জানান যে, তারা কোয়েসের সঙ্গেই রয়েছেন। ক্লাব কর্তারা নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য যা করছেন তা অত্যন্ত খারাপ করছেন এবং তা কখনই ক্লাবের প্রকৃত সমর্থকেরা সমর্থন করবেননা। সোশ্যাল মিডিয়াডেও একই চিত্র, ইস্টবেঙ্গলের বিভিন্ন ফ্যানস ফোরামগুলোর পক্ষ থেকেও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বার্তা দেওয়া হচ্ছে যে তারা যেন বয়কট করে ইস্টবেঙ্গল প্রেসিডেন্ট XI। এখন দেখার বিষয় এটিই যে কোয়েস কর্তা অজিত আইজ্যাক ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কি উত্তর দেবেন এবং পরবর্তীতে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কর্তারা কি সিদ্ধান্ত নেবেন।

1 comment: