আগামী মরশুমের দল গঠন নিয়ে আলোচনা কাল। তালিকায় তরুণ প্লেয়াররা।


বেঙ্গল ফুটবল নিউজ ডেস্ক, ২৭ মার্চ,২০১৯

সুপার কাপ নিয়ে বিতর্ক প্রায় শেষের পথে৷ রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়ে গেলেও শোনা যাচ্ছে যে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কালকের মিটিং-এই৷ সমস্ত সমস্যা সমাধানের জন্য কাল অর্থাৎ ২৮ তারিখ ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কর্তাদের বেঙ্গালুরুতে ডেকে পাঠিয়েছেন কোয়েস কর্তারা৷ আলোচনা হবে আসন্ন সুপার কাপ, আইএসএল এবং আগামী মরশুমের দল গঠন নিয়ে৷ এই আলোচনায় যোগ দিতে আজই বেঙ্গালুরুতে উড়ে যাবেন লাল হলুদ কর্তারা। মিটিং-এ উপস্থিত থাকবেন কোয়েস শীর্ষকর্তারাও।




সুপার কাপ প্রসঙ্গে শোনা যাচ্ছ যে, লাল হলুদের হেড স্যার আলেজান্দ্রো সুপার কাপে অংশগ্রহণ করতে আগ্রহী। কোয়েস কর্তাদের মন থেকেও সুপার কাপ নিয়ে বরফ ক্রমশ গলছে। রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে, এছাড়াও অনুশীলন নিয়ে যেভাবে তোড়জোড় চলছে তাতে বলা যায় যে সুপার কাপ খেলতে আর বিশেষ আপত্তি নেই কোয়েস কর্তাদের৷ তবে শুধু সুপার কাপ-ই নয়। আগামী মরশমে আইএসএল খেলা নিয়েও কাল আলোচনা হতে চলেছে কর্তাদের মধ্যে, সঙ্গে আগামী মরশুমের দল গঠন নিয়েও৷


আগামী মরশুমের দল গঠনের জন্য লাল হলুদ কোচ আলেজান্দ্রো তাঁর পছন্দের প্লেয়ারদের একটি তালিকা তৈরী করে ইতিমধ্যেই তা কোয়েস কর্তাদের হাতে তুলে দিয়েছেন৷ আলেজান্দ্রো চাইছেন ভারতীয় এবং বিদেশী উভয় প্লেয়াদের নির্বাচনই যেন কোচের পছন্দমতো হয়৷ আই লিগে ইন্ডিয়ান অ্যারোজের তরুণ ফুটবলারদের খেলা দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন আলেজান্দ্রো। শোনা যাচ্ছে যে, তাঁর তৈরী তালিকায় স্থান পেয়েছে ইন্ডিয়ান অ্যারোজের বেশ কিছু তরুণ ফুটবলার। অপরদিকে বিদেশী প্লেয়ারদের মধ্যে এনরিকে-কে নিয়ে ধোঁয়াশা এখনও রয়েছে। ক্লাবের সঙ্গে এনরিকের চুক্তি এখনও রয়েছে, তাই এনরিকে-কে ফিরতে চিঠি পাঠিয়েছিলেন কোয়েস ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। কিন্তু এখনও অবধি এনরিকে এই বিষয়ে কোনো উত্তর দেননি এমনকি ভারতে ফিরে অনুশীলনেও অংশগ্রহণ করেননি৷ কিন্তু চুক্তি ভঙ্গের দরুন এনরিকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে পারেন কোয়েস ইস্টবেঙ্গল কর্তারা৷ তাই সে কথা ভেবে এনরিকে ফিরে এলেও আসতে পারে বলে ফুটবল মহলের ধারণা৷ তবে তা না হলে এনরিকের স্থানে নয়া বিদেশী স্ট্রাইকার নিজের পছন্দমতোই লাল হলুদ কোচ ক্লাবে নিয়ে আসবেন বলে শোনা যাচ্ছে। আর এন নিয়েই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কাল কোয়েস - ইস্টবেঙ্গল মিটিং-এ। পরিশেষে বলা যায় যে, লাল হলুদের সমস্যার সমস্ত উত্তর সম্ভবত মিলতে চলেছে কাল কোয়েস এবং ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের মিটিং-এর পরই।

No comments