"বদলায়নি শুধু লাল হলুদ রঙটা", সমর্থকদের উন্মাদনা দেখে স্তম্ভিত মজিদ বাসকর।


বেঙ্গল ফুটবল নিউজ ডেস্ক, ১২ আগস্ট, ২০১৯

দীর্ঘ ৩২ বছর পর রবিবার ভোর রাতে কলকাতাতে পা রাখেন আশির দশকের বাদশাহ মজিদ বাসকর। একদা লাল হলুদ জার্সিতে বল পায়ে তিনি হয়ে উঠেছিলেন ভারতে খেলে যাওয়া শ্রেষ্ট বিদেশী ফুটবলার৷ সেই বাদশাহ-ই অবশেষে আজ বিকেলে পা রাখলেন তাঁর প্রিয় ইস্টবেঙ্গল তাঁবুতে৷ ঘড়ির কাটা তখন বিকেল চারটা ছুঁই ছুঁই, সেসময়ই ক্লাব তাঁবুতে এসে উপস্থিত হলেন আশির দশকের বাদশাহ মজিদ বাসকর সঙ্গে বন্ধু জামসেদ নাসিরি। গাড়ি থেকে নামতেই জনা তিরিশ এক লাল হলুদ সমর্থক ঘিরে ধরেন মজিদকে, তাদের সামলাতে রীতিমতো হিমসিম খান ক্লাব কর্তারা৷ দুজনকেই এরপর লাল হলুদ জার্সিতে দেখা যায় সাংবাদিক সম্মেলনে৷ সাংবাদিক বৈঠকে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে মজিদের মুখে ভেসে বেড়য় তাঁর নানান স্মৃতির কথা।




আশির দশকে খেলে যাওয়া মজিদ বাসকরকে নিয়ে ২০১৯ এও যে উন্মাদনা বর্তমান, তা দেখে রীতিমতো স্তম্ভিত বাদশাহ। তিনি এই প্রসঙ্গে বলেন যে, তিনি ভাবেনইনি যে তাকে নিয়ে এখনও এতোটা উন্মদনা। বিমানবন্দরে শয়ে শয়ে লাল হলুদ সমর্থকদের দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। এরপরই তিন দশক পর ক্লাবে ফিরে ক্লাবের কি কি পরিবর্তন হয়েছে তা জানতে চাওয়া হলে মজিদ বলেন যে, ক্লাবের সমস্তটাই পরিবর্তন হয়ে গিয়েছে। গ্যারাটিকেও চেনা যাচ্ছেনা। শুধু যেটা বদলায়নি তা হলো লাল হলুদ রঙটি। তিনি এও জানান যে তিনি কলকাতা না থাকলেও তিনি সবসময়ই কলকাতার খবর পেতেন। কলকাতা বরাবরই তাঁর কাছে স্পেশাল। তবে তিনি ভাবেননি যে ফের কলকাতাতে আসবেন। মজিদের কথায়, শতবর্ষের আমন্ত্রণ পাওয়ার পর আসবেন নাকী আসবেননা তা নিয়ে দোটানায় ছিলেন তিনি। অবশেষে জামসেদ, মনোরঞ্জন ভট্টাচার্যদের ফোন পেয়ে আসতে রাজি হন তিনি।


মজিদের কেরিয়ারে তাঁর সেরা মুহূর্তের কথা জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান যে, মহামেডানের বিরুদ্ধে রোভার্স কাপের ফাইনালের গোলটি সেরা গোল। এবং দার্জিলিং গোল্ড কাপে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ম্যাচটি সেরা ম্যাচ৷ তাঁর সময়ে সেরা ডিফেন্ডারের নাম জানতে চাওয়া হলে মজিদ জানান সুব্রত ভট্টাচার্যের নাম। এরপরই মজিদ জানান যে, ইরানে ফিরে যাওয়ার পর তিনি বাচ্চাদের ফুটবল শেখানো শুরু করেন, বড়দের নিয়েও দল গড়ে ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করেন। এতোসবের মধ্যেও ইস্টবেঙ্গল থেকে একটিবার ডাকের জন্যই অপেক্ষা করছিলেন তিনি। আর সেই ডাক পাওয়ার পর কিছুটা দ্বিধান্বিত হলেও পরে তিনি ক্লাবের টানেই চলে আসেন কলকাতাতে। এছাড়াও বর্তমানে মেসি নাকী রোনাল্ড কে সেরা খেলোয়াড়? তা প্রশ্ন করতে মজিদ জবাব দেন মেসি। এরপরই তিনি ইস্টবেঙ্গল মাঠে নেমে পরেন লাল হলুদ জার্সিতে, সমর্থকদের সঙ্গে হ্যান্ডশেক সেরে, পায়ে ফুটবল নিয়ে কয়েকটি শটও দেন। ইস্টবেঙ্গল গ্যালারি সেসময় ভেসে যায় মজিদ!!!!! মজিদ!!!! ধ্বনিতে।

No comments